ডিসেম্বর 7, 2019

প্রথমে, গত সপ্তাহের ঘটনাগুলোর একটা পর্যালোচনা:

  • EUR/USD। সোমবার ইউরো খাঁড়া উপরের দিকে ওঠে। কেউ সেটা প্রত্যাশা করেনি এমনটা বলছি না। বিশ্লেষকদের 35% এবং H4 ও D1-এর উপর গ্রাফিক্স সহযোগে করা বিশ্লেষণগুলো এই জুটির 1.1100-র উচ্চতায় ওঠার পূর্বাভাস ছিল। কেউ কেউ এটাও ধরে নিতে পারেন যে, এই বৃদ্ধির সঙ্গে ইউরোপিয়া সেন্ট্রাল ব্যাংকের নতুন কর্ণধার ক্রিস্টিন ল্যাগার্ডের কাজকর্মের যোগ রয়েছে। কিন্তু সেটা হওয়ার সম্ভাবনা নেই, কারণ উচ্চপদস্থ ওই আধিকারিকের কথার বেশিরভাগের সঙ্গে আর্থিক নীতির উন্নতির কোন যোগসূত্র ছিল না, বরং তাদের নিষ্ঠা ক্রিপ্টো-ইউরোর আগমনের সম্ভাবনার ব্যাপারেই বেশি কেন্দ্রিভূত ছিল। যদিও, মহা-নিয়ামকের কাজের যে তাজা হাওয়ার ঝাপটা ছিল তা ইউরোপের মুদ্রাকে শক্তিশালী করতেই পারত।
    জার্মানি ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের উৎপাদন ক্ষেত্রের ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ডের সূচকের প্রকাশ, যাতে সামান্য বৃদ্ধি লক্ষ্য করা গেছিল, কিছুটা ইতিবাচক মেজাজ সঞ্চারিত করেছিল। কিন্তু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে আসা মাইক্রোইকোনমিক পরিসংখ্যানের ক্ষেত্রে বলা যায়, তা বিনিয়োগকারীদের খুশী করতে পারেনি: উৎপাদন ও পরিষেবা ক্ষেত্রের ISM ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ডের সূচকেও কিছুটা পতন দেখা গেছিল। ফলস্বরূপ, ইউরো তার 1.1116-এর উচ্চতায় উঠেছিল।
    কোন চমক ছাড়াই সপ্তাহের শেষটা হয়েছিল। যেমনটি প্রত্যাশিত ছিল, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কৃষিক্ষেত্রে বাইরে কিছু কর্মসংস্থান তৈরি হওয়ার মতো (খামার-বহির্ভুত বেতন, NFP) 70%-এর বেশি বৃদ্ধি পেয়েছিল। আর বাজার সঙ্গে সঙ্গে তাতে প্রতিক্রিয়া দিয়ে ডলারকে 60 পয়েন্ট তুলে দিয়েছিল। তারপর বড়-সড় মোড় আসে এবং এই জুটি 1.1060-এ এসে স্তব্ধ হয়ে যায়;
  • GBP/USD। মনে হবে যেন 12ই ডিসেম্বর, বৃহস্পতিবারের সংসদের নির্বাচনের কথা মাথায় রেখেই সব কিছু থমকে গেল। হাজার হলেও তার উপরেই তো Brexit-এর তথা UK-এরও ভবিষ্যৎ নির্ভর করে আছে। তবে ব্রিটিশ মুদ্রা গোটা সপ্তাহ জুড়েই উঠেছে, যাকে নির্বাচনের ফলাফল সংক্রান্ত পূর্বানুমালগুলি, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দুর্বল আর্থিক পরিসংখ্যান এবং OPEC-এর উন্নতি + সম্মেলন এই সবই তাকে ভাসিয়ে রেখেছিল। ব্রিটিশ মুদ্রার ভীষণভাবে "কালো সোনা"-র সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত, এবং তেল উৎপাদনকারী দেশগুলি আগামি 01লা জানুয়ারী থেকে শুরু করে 1.7 মিলিয়ন ব্যারেল তেল বাজার থেকে সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্তও পাউন্ডকে অবলম্বন জুগিয়েছিল। GBP/USD জুটি সপ্তাহটা 1.3132-এ শেষ করে, পাঁচ দিনে 215 পয়েন্টেরও বেশি যোগ করে;  
  • USD/JPY। আগের সপ্তাহের পরিস্থিতির নিরীখে, এই জুটির, 110.00-র উচ্চতায় পৌঁছে, দক্ষিণ দিকে ঘুরে যাবার কথা ছিল। যদিও, এই জুটি সেটা করেছিল, খালি 25 পয়েন্ট মতো বাকি রেখে। আর তারপর সবকিছুই হুবহু পূর্বাভাস অনুসারেই হয়েছিল: 109.00-এর অবলম্বনে পতন, তারপর একটু থামা, এবং পরবর্তী অবলম্বন অঞ্চল 108.50-র অঞ্চলে পতন। তার থেকে খুব একটা দূরে, 108.55-র স্তরে, এই জুটি তার কারবার সেশন শেষ করেনি;
  • ক্রিপ্টোকারেন্সি। ট্যুইটার থেকে একটা অপ্র্যাশিত খবর আসে। বরং, তা এই সামাজিক নেটওয়ার্কের CEO জ্যাক ডোর্সেই এনেছিল, যিনি বলেছিলেন, ক্রিপ্টোকারেন্সির ভবিষ্যৎ ঠিক করবে... আফ্রিকা। কেন? এই জন্যই যে, আফ্রিকা... খুবই দরিদ্র একাট মহাদেশ, আর সেটাই বিটকয়েন ও অন্যান্য ক্রিপ্টোকারেন্সিগুলিকে ওই মহাদেশের বিভিন্ন দেশগুলির দ্বারা গ্রহণ করার অন্যতম প্রধান কারণ হবে।
    এর কিছু যুক্তি থাকতে পারে তবে এখনকার মতো ডিজিটাল বাজারে কী হবে তা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপ ও চীনই নির্ধারণ করে। গত সপ্তাহে, ইউরোপ নিজেদের আলাদা রেখেছিল। এটা প্রমাণিত হয়েছিল যে, ইউরোপের মহা-নিয়ামক একটি সরকারি ডিজিটাল ইউরো প্রবর্তনের সম্ভাবনার ব্যাপারে সক্রিয়ভাবে ভানা-চিন্তা করছেন। ইউরোপের সংসদের একটি শুনানিতে ECB-র নতু কর্ণধার ক্রিস্টিন ল্যাগার্ডে বলেন, "আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে, ইউরোপে একটি অভিনব, নির্ভরযোগ্য ও সমণ্বিত প্রদানের প্রণালী বিকশিত করা। সেটা ইউরো অঞ্চলের মধ্যে থাকা সকলকেই সুবিধা করে দেবে এবং বিশ্বে ইউরোর অবস্থাকে উল্লেখযোগ্যভাবে শক্তিশালী করে তুলবে।" কিন্তু তারপর তিনি আরও বলেন যে, এই ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণের আগে সমস্ত রকমের ঝুঁকিগুলিকে খতিয়ে দেখার দরকার আছে এবং সমস্ত রকমের "অনুকূল" ও "প্রতিকূল” বিষয়গুলিকে খুব সতর্কতার সঙ্গে মেপে দেখারও দরকার আছে।
    গত সপ্তাহের পূর্বাভাসের ক্ষেত্রে, তা সর্বোতভাবে সঠিক ছিল। মনে করে দেখুন, বেশিরভাগ বিশ্লেষকদের মত ছিল, BTC/USD জুটির $7,000-8,000-এর একটি পার্শ্ববর্তী চ্যানেলে যাবার প্রবণতা রয়েছে। একইসঙ্গে, 40% বিশেষজ্ঞ এই চ্যানেলের ঊর্ধ্বসীমা ভেঙ্গে বেরনোর প্রচেষ্টাকেও নস্যাৎ করে দেয়নি।
    বাস্তবে, সবকিছুই সেইরকমই হয়েছে। এর ঊর্ধ্বসীমা থেকে চলতে শুরু করে, এই জুটি নিচে নেমে $7,095-এর স্তরে চলে যায়। তারপর, গত 04ঠা ডিসেম্বর, বুধবার একটা তীক্ষ্ণ ঊর্ধ্বমুখী গতি দেখা যায়, কিন্তু এই উপরে ওঠার (বুল) এই প্রচেষ্টা শুধুমাত্র বিটকয়েনকে $7,865-এর হরাইজনে তুলে দেবার জন্যই যথেষ্ট ছিল। এর পর-পরই একটা তীক্ষ্ণ পতন দেখা গেছিল, $7,110-এ নেমে আসা, এবং তারপর চ্যানেলের কেন্দ্রিয় হরাইজনে ফিরে আসা, যার সঙ্গে অস্থিরতায় হ্রাসও দেখা গেছিল যেটা $7,330-7,465-এর মধ্যে ছিল।
    শীর্ষস্থানীয় অল্টকয়েনগুলির দর, যেমন রিপল (XRP/USD), ইথিরিয়াম (ETH/USD) এবং লিটকয়েন (LTC/USD), স্বাভাবিকভাবেই তাদের "বড় ভাই” বিটয়কেনের পদাঙ্ক অনুসরণ করে। আর এই ঘটনা সত্ত্বেও যে, কাজের সপ্তাহের শেষে তারা সবুজ অঞ্চলে থাকলেও, সাত দিনের ফলাফলকে মাঝারি নেতাবাচক হিসেবে চিহ্নিত করা যেতে পারে। এইভাবে, রিপলের দাম 3.5%, ইথিরিয়ামের দাম 5% এবং লিটকয়েনের দাম 9% পড়ে যায়।

 

আগামি সপ্তাহের পূর্বাভাসের ক্ষেত্রে, একাধিক বিশ্লেষকদের মতামতগুলোকে, ও সেই সঙ্গে প্রযুক্তিগত ও গ্রাফিক্সভিত্তিক বিশ্লেষণের বহুবিধ পদ্ধতির ভিত্তিতে করা পূর্বাভাসগুলোকে একত্রিত করে, আমরা নিম্নোক্ত কথাগুলো বলতে পারি:

  • EUR/USD। আগামি সপ্তাহে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপে তিনটি গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা প্রত্যাশিত, সেগুলি হল: 11ই ডিসেম্বর, বুধবার, ফেডেরাল রিজার্ভের ও সেই সঙ্গে 12ই ডিসেম্বর, বৃহস্পতিবার ECB-র সুদের হার সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত এবং বৃহস্পতিবারে UK-তে নির্ধারিত সংসদের নির্বাচন। আর ফেডেরাল রিজার্ভ এবং ECB যদি সুদের হার এখনকার জন্য আগের মতোই রেখে দেয়, তাহলে UK-র নির্বাচন থেকে কিছু চমক আশা করা যেতে পারে। এগজিট পোলের ফলাফল সেন্ট্রাল ইউরোপিয়ান টাইম অনুযায়ী বৃহস্পতিবার রাতের দিকে জানা যাবে, এবং নির্বাচনের চূড়ান্ত ফলাফল আগামি 13ই ডিসেম্বর, শুক্রবার জানা যাবে। তারপরই আমরা বাজার থেকে কোন শক্তিশালী প্রতিক্রিয়া আশা করতে পারি।
    13 তারিখ শুক্রবারটা কুসংস্কারাচ্ছন্ন লোকেদের কাছে একটা খারাপ দিন হলেও, বিশেষজ্ঞদের পূর্বাভাস কিন্তু ততটা নিরাশাজনক নয়। তাদের 65%, যাকে D1-এর উপর গ্রাফিক্স সহযোগে করা বিশ্লেষণ সমর্থন করেছে, এই জুটির 1.1100-র প্রতিরোধ অঞ্চল অবধি বৃদ্ধির পক্ষে মত দিয়েছে, আর কঠোর Brexit-এর বিরোধীরা যদি UK-র নির্বাচনে জিতে যায় সেক্ষেত্রে, এই জুটি সহজেই 1.1175-এর উচ্চতায় উঠে আসতে পারবে।
    ডিসেম্বরের শেষ অবধি করা পূর্বাভাসগুলির ক্ষেত্রে, বেশিরভাগ বিশ্লেষকই মনে করেন যে, এই জুটি তাদের ওঠা-নামার হারকে 1.0900-1.1100 মধ্যে রেখে, পিভোট পয়েন্ট 1.1000 বরাবর এগোবে;
  • GBP/USD। উপরে যেমনটি বলা হয়েছে, পাউন্ডের আশু ভবিষ্যৎ 12ই ডিসেম্বরে নির্ধারিত হয়ে যাবে। ইতিমধ্যে, বিশেষজ্ঞেরা কেবল কাঁধ ঝাকাতেই পারেন। যারা বুনিয়াদি বিশ্লেষণের থেকে চার্ট আর ক্যান্ডেলস্টিক আকারগুলিকে বেশি পছন্দ করেন তাদের ক্ষেত্রে, এটা বলা যেতে পারে যে, D1-এর উপর গ্রাফিক্স সহযোগে করা বিশ্লেষণ এই জুটির বৃদ্ধি প্রথমে 1.3175-এর প্রতিরোধ অঞ্চল অবধি এঁকেছে, এবং তারপর 1.3370 অবধি, এবং নতুন বছরটা 1.3500-র উচ্চতা অবধি এঁকেছে। প্রবণতার সূচকগুলির 100% এবং D1 অসিলেটরগুলির 85% এই পূর্বভাসকে সমর্থন করেছে। বাকি 15% এই জুটির মাত্রাতিরিক্ত ক্রয়ের সংকেত দিয়েছে, যা প্রবণতার নিচে দিকে যাবার সম্ভাবনার ইঙ্গিত দিচ্ছে;  
  • USD/JPY। এই জুটি এখন একটি মজবুত অবলম্বন/প্রতিরোধের অঞ্চলে রয়েছে, যা গত এপ্রিল 2017 থেকে স্পষ্ট। এছাড়াও আমরা পার্শ্ববর্তী পথের কথাও বলতে পারি যার অবলম্বন 108.25, যা এই পতনের শুরুটা করেছে।
    বেশিরভাগ বিশেষজ্ঞ (65%) মনে করে, সমস্ত রকমের প্রচেষ্টা সত্ত্বেও, এই জুটি ওই অবলম্বনকে ভেঙ্গে বেরোতে পারবে না এবং তাই তা পার্শ্ববর্তী অলিন্দে চলে যাবে, যা গত অক্টোবরে শুরু হয়েছে। তাদের মতে, আমরা যদি ইউরোপ আর লাতিন আমেরিকার যথেষ্ট দুর্বল মাইক্রোইকোনমিক সূচকগুলিকে দেখি, তাহলে বিনিয়োগকারীদের ডলারকে একটি নিরাপদ আশ্রয়ের মুদ্রা হিসেবে দেখার ব্যাপারে উৎসাহ বাড়বে। আর সুদের হারের তফাতের কারণে, ডলার ইয়েনের থেকে অনেক বেশি আকর্ষণীয় হয়ে উঠবে, যা এই জুটিকে উপরে তুলে দেবে। নিকটবর্তী প্রতিরোধ হল 109.00, পরেরটা হল 109.30, লক্ষ্য হল 109.75।
    অবশ্যই, এই জুটির দরকে মার্কিন-চীন বাণিজ্য সমঝোতার গতিপ্রকৃতি এবং UK-র নির্বাচনের ফলাফলও প্রভাবিত করতে পারে। অতএব, একটি নিম্নমুখী (বিয়ারিশ) পরিস্থিতির সম্ভাবনাও খারিজ করা হচ্ছে না, যার মতে এই জুটি দ্রুত 03 অক্টোবরের 106.50-র নিম্নতম স্তরে ছুটে যাবে। অন্তর্বর্তী অবলম্বনগুলি হল 107.90, 107.50 এবং 107.00-র অঞ্চলগুলি। বিশ্লেষকদের 35% এই অগ্রগতির পক্ষে মত দিয়েছে, সেই সঙ্গে D1-এর উপর সূচকগুলির 70%-ও;

  • ক্রিপ্টোকারেন্সি। আগামি সপ্তাহের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা হওয়া উচিৎ 09ই ডিসেম্বর Bakkt প্ল্যাটফর্মে বিটকয়েন সেটেলমেন্ট ফিউচার চালু হওয়া। আর তাতে এমন নিশ্চয়তা নেই যে, তা বিটকেয়নের পক্ষে সহায়ক হবে। একটা মত এরকম আছে যে, ওই প্ল্যাটফর্মটি আসলে মার্কিন সরকারের একটি "হাত", যা ঠিক সময়ে ক্রিপ্টো-বাজারের গলা টিপে ধরতে পারবে বা, অপরপক্ষে, তাকে কিছুটা দম নেবার সুযোগ করে দেবে। যে ঘটনাটি এই মতের যথার্থতা প্রদান করে তা হল, Bakkt-এর CEO কেলি লোয়েফলার ইতিমধ্যেই ওয়াশিংটনে জর্জিয়া থেকে নির্বাচিত একজন সেনেটর হিসেবে উপবিষ্ট রয়েছেন।
    ডিজিটাল বাজারের উপর নিয়ামক সংস্থাগুলির চাপ এবং এটাকে নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নেবার তাদের আকাঙ্খা ক্রিপ্টোকারেন্সিগুলির দর বৃদ্ধিতে সাহায্য করছে না। আর তাৎক্ষণিক বড়-সড় লোকসানের ভয় বড়-বড় বিনিয়োগকারীদের এর থেকে দূরে রেখেছে। ব্লুমবার্গের মতে, এর ফলস্বরূপ 2019 সালে 70টি ক্রিপ্টোকারেন্সি হেজ ফান্ড বন্ধ হয়ে গেছে। নতুন তৈরি হওয়া ক্রিপ্টো-ফান্ডগুলির সংখ্যাও গত বছরের তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ কমে গেছে। তাই, বিটকয়েন অনুরাগীদের এই ভবিষ্যদ্বাণী যে, এই ক্রিপ্টোকারেন্সি এই বছরের শেষের দিকে আবার তার $20,000-র উচ্চতা ছোঁবে, সত্যি হওয়াটা প্রায় অসম্ভব।
    তবে, কেটেরিস পারিবাস বিশেষজ্ঞদের মতে, গত দেড় বছর ধরে প্রায় 6 লক্ষ BTC কয়েন (যার মূল্য আনুমানিক $5 বিলিয়ন) কোনরকম গতিবিধি ছাড়াই পড়ে রয়েছে। এটাই ব্যক্তিগত বিনিয়োগকারীদের বিটকয়েনের বৃদ্ধির আশাকে জাগিয়ে রেখেছে। এর কারণ হাভিং-2020 হতে পারে। কয়েকজন "ক্রিপ্টো-গুরু"-র মতে, এই অর্ধেক হওয়ার পরিণামস্বরূপ বিটকয়েনের দর লাফিয়ে 4000% উপরে উঠতে পারে। তারা তাদের যুক্তি হিসেবে প্রধান ডিজিটাল সম্পদে তীক্ষ্ণ লাফের উদাহরণ দেখাচ্ছেন, যা গত দু’বার দর কমায় মাইনারদের পুরস্কার হিসেবে এসেছিল। প্রথমবার হ্রাসের পর এটি 3420% ওঠে। দ্বিতীয়বারের পর – 4080%। তবে, লিটকয়েনের ক্ষেত্রে যা হয়েছিল, যা 2019-এর গ্রীষ্মের শেষের দিকে অর্ধেক মূল্য চলে এসেছিল, তা এই ধরনের কপোল-কল্পনার ব্যর্থতার দিকেই ইঙ্গিত করছে। এই ঘটনার পর-পরই LTC-দর বাড়তে শুরু করেছিল বৈকী, কিন্তু অর্ধেক হয়ে যাওয়ার দিনে কিছুই ঘটেনি, এবং তারপর LTC/USD পড়েই যেতে থাকে।
    বিটকয়েনের প্রসঙ্গে ফিরে আসি, এটা বলা যেতে পারে যে, ডিসেম্বরের জন্য অধিকাংশ বিশেষজ্ঞদের দেওয়া পূর্বাভাসগুলিতে BTC/USD জুটির জন্য কোন ভালকিছুর ভবিষ্যদ্বাণী করা হয়নি। তাদের মধ্যে 65% এই জুটিকে $6,000-6,600-এর অঞ্চলে দেখছে। তবে, আরও একবার, Bakkt-এ শুরুর কেনাবেচা কেমন হবে তার উপর অনেক কিছুই নির্ভর করছে। এখনকার মতো, ক্রিপ্টো ফিয়ার অ্যান্ড গ্রিড ইন্ডেক্স এখনও তার নিচের দিকের তৃতীয়াংশে রয়েছে, 29-এ, যা বিনিয়োগকারীদের মাঝারি রকমের ভয়ের সামিল।

 

রোমান বুটকো, NordFX

 

দ্রষ্টব্য: এই বিষয়বস্তুটিকে বিনিয়োগের সুপারিশ অথবা আর্থিক বাজারগুলিতে কাজ করার দিকনির্দেশ হিসেবে বিবেচনা করা উচিৎ হবে না: এগুলির উদ্দেশ্য শুধুমাত্র তথ্য সরবরাহ করা  আর্থিক বাজারগুলিতে কেনা-বেচা করা ঝুঁকিপূর্ণ কাজ এবং তা লগ্নীকৃত অর্থ পুরোপুরি হারানোর কারণ হতে পারে


« বাজার বিশ্লেষণ ও সংবাদ
প্রশিক্ষণ
গ্রহণ করুন
মার্কেটে নতুন? ব্যবহার করুন “শুরু করা যাক” বিভাগটি।
প্রশিক্ষণ শুরু করুন
আমাদের অনুসরণ করুন (সামাজিক নেটওয়ার্কগুলিতে)