ডিসেম্বর 15, 2018

-প্রথমে, গত সপ্তাহের ঘটনাবলীর বিষয়ে পর্যালোচনা করা যাকঃ

  • EUR/USD মুদ্রাজুড়ি। যদি গত সপ্তাহের প্রাথমিক পূর্বাভাস 1.1310-1.1415-এর চ্যানেলে একটি তির্যক গমনাগমনের পথে যেতে পারে বলে অনুমান করত, ইউরোপীয়ান সেন্ট্রাল ব্যাংকের বৈঠক এবং ইসিবি-র (ECB) রাষ্ট্রপতি মারিও দ্রাঘীর পরবর্তী সম্মেলনকে মূল ঘটনা বলে অভিহিত করা হয়েছিল। ইসিবি 1লা জানুয়ারী, 2019-তে প্রসারণমূলক আর্থিক নীতি সম্পূর্ণ করতে এক দীর্ঘ-প্রতিশ্রুতির সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছিল, এবং দ্রাঘী বিনিয়োগকারীদের একটি ক্রমবর্ধমান ঝুঁকির বিবৃতি দিয়ে নিরুৎসাহিত করেছিলেন। এর ভিত্তিতে, এই অঞ্চলের 2018-19 সালের আর্থিক বৃদ্ধি হ্রাস পেয়েছিল, যার কারণে ইউরোর পতন হয়েছিল, কিন্তু বিবৃত চ্যানেলের পরিসীমার মধ্যে ছিল।
    মূল সহায়ক স্তর হিসাবে ইতিমধ্যেই শুক্রবার, 14ই ডিসেম্বরে ভেঙ্গে গিয়েছিল,যখন বান্ডেশব্যাংক জার্মানীর জিডিপি এবং মুদ্রাস্ফীতির পূর্বাভাস করেছিল। নিয়ন্ত্রক বর্তমানে আশা করে যে শেষ হয়ে যাওয়া বছরে অর্থনীতির বৃদ্ধি 2.0% হবে না, যেমন পূর্বে ধারনা করা হয়েছিল, কিন্তু মাত্র 1.5% হবে। 2019 সালের কথা বলতে গেলে, পূর্বাভাস এখানে 1.9% থেকে 1.6%-এ কমানো হয়েছিল। হতাশব্যঞ্জক ব্যবসার কার্যক্ষমতার সূচক অবশেষে বাজারকে হতাশ করেছিল, এবং এই জুড়ি খুব দ্রুত নীচে নেমে গিয়ে 1.1270-এর স্থানীয় তলদেশে পৌঁছিয়েছিল। এর পরে, একটি ছোট্ট সজোরে প্রতিঘাত এসে 1.1300-এর স্তরে ফেরৎ এসেছিল, যা সহায়ক স্তর থেকে প্রতিরোধক স্তরে ঘুরেছিল; 
  • GBP/USD মুদ্রাজুড়ি। পাউণ্ড এখনও ব্রেক্সিটের দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে। যেমন আশা করা হয়েছিল, ইউ থেকে বিচ্ছিন্ন হবার বিষয়ে চুক্তির ব্রিটিশ পার্লামেন্টে কোন ফল এখনও হয় নি। এটি কেবলমাত্র বাতিল হয়েছে। এর ফলে, বুধবার, 12ই ডিসেম্বরে, এই মুদ্রাজুড়ির 1.2474-এর স্তরে পতন হয়ে, সপ্তাহের শুরুর তুলনায় 285 পয়েন্ট খুঁইয়েছিল। পাঁচ দিনের সপ্তাহের শেষে, এই মুদ্রাজুড়ি 1.2585-এর স্তরে পোঁছিয়েছিল; 
  • USD/JPY মুদ্রাজুড়ি। গত সপ্তাহে, 45% বিশেষজ্ঞ এই মুদ্রাজুড়ির পক্ষে ভোট দিয়েছিলেন, এবং 113.20, 113.65 ও 114.00-কে প্রতিরোধক স্তর হিসাবে নির্দেশিত হয়েছিল। সত্যি কথা বলতে গেলে, যা প্রায়শই হয়ে থাকে, তা মাঝে হয়েছিল, এবং 113.70-এর উচ্চতায় এক সাপ্তাহিক উঁচু লক্ষ্য করা গিয়েছিল। সপ্তাহের চূড়ান্ত স্তর 113.35-এর উচ্চতায় স্থিত হয়েছিল;
  • ক্রিপ্টোমুদ্রা। সাম্প্রতিক কালে খবরের পটভূমি খুবই বিবর্ণ ছিল, এবং ইতিবাচক ও নেতিবাচক সংবাদ পরস্পর আসছিল। যেসব উৎসাহব্যঞ্জক ঘটনা ঘটছিল তার মধ্যে একটি ছিল জাপানী ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জ Coincheck-এর ইউএস বাজারে সম্ভাব্য উপস্থাপনা, সুইজারল্যাণ্ডে  Bitcoin-এর অ্যানালগ ETF-এর রেকর্ড পরিমাণ চাহিদা, এবং এই খবর যে এমবেডেড Ethereum ওয়ালেট অপেরা ব্রাউজারে উপস্থিত হবে। এই সব ইতিবাচক খবরের বিরুদ্ধ খবর হল যে ইতিহাসে প্রথমবার, আমেরিকার সিকিউরিটিস অ্যাণ্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (SEC)  ক্রিপ্টোমুদ্রা ব্যাংক AriseBank-কে জালিয়াতির অভিযোগে জরিমানা ধার্য্য করেছে। তেজিবাজার এই খবরে হতাশ হয়েছে যে ক্রিপ্টোমুদ্রার বাজারে প্রতিকূল পরিস্থিতির জন্য, লাভদায়ী মহারথী Bitmain ইজরায়েলে তার অফিস বন্ধ করছে।
    এরকম এক পটভূমিতে যেখানে Bitcoin-এর উত্থান ও পতন হচ্ছে, এবং এর ফলে, শুক্রবার 14ই ডিসেম্বরের সন্ধ্যায় এটি দেখা গিয়েছিল যে এক সপ্তাহ আগে যেখান থেকে শুরু হয়েছিল সেখানেই স্থিত হয়েছিল, এবং 2018 সালের সারা বছরের নিম্ন দরে পৌঁছে 3.225$-এর স্তরে নেমে গিয়েছিল।
    প্রাথমিক altcoins-এর কথা বলতে গেলে যথা Ethereum (ETH / USD), Litecoin (LTC / USD) এবং Ripple (XRP / USD), এগুলি বিশ্বস্তভাবে সারা সপ্তাহ ধরে রেফারেন্স ক্রিপ্টোমুদ্রাকে বারবার অনুসরণ করেছিল। 

 

-আসন্ন সপ্তাহের পূর্বাভাসের বিষয়ে, অনেক সংখ্যক বিশ্লেষকদের মতামতের সাথে সাথে প্রাযুক্তিক ও রৈখিক বিশ্লেষণের বিভিন্ন পদ্ধতির ভিত্তিতে কৃত পূর্বাভাসগুলিকে সংক্ষিপ্ত করে আমরা নিম্মলিখিত বক্তব্য রাখছিঃ

  • EUR/USD মুদ্রাজুড়ি।  এখানে রং হল লাল। এটি প্রায় এক অভূতপূর্ব বিষয়ঃ H4 এবং D1-তে 100% দোদুল্যমান সূচক এবং 100% নির্দেশকগুলি ঠিক এই রংয়ে অঙ্কিত হয়েছে। 70% বিশেষজ্ঞরাও ডলারের বৃদ্ধির পক্ষে মত দিচ্ছেন এবং এই মুদ্রাজুড়ির পতনের পূর্বাভাস করছেন। এর কারণ হল সুদের হার।
    সম্ভাবনা হল যে ফেড বুধবার, 19শে ডিসেম্বরে হারের বৃদ্ধি 2.25% থেকে 2.5% ঘোষনা করতে যাচ্ছে যা 75%-এর বেশী। এছাড়াও, বাজার পরবর্তী বছরে একটি বা দুটি বৃদ্ধি আশা করছে। ইউরোর হারের বৃদ্ধির বিষয়ে বলতে গেলে, এখানে একটি সম্পূর্ণ অনিশ্চিত অবস্থা রয়েছে। দ্রাঘী 2019-এর গ্রীষ্মকাল অবধি এই হারকে শূন্য স্তরে রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। কিন্তু এই গ্রীষ্মে এই বৃদ্ধি হবে কিনা সেবিষয়ে একটি প্রশ্ন থেকে যায়। তাই, এই বছরের নিম্ন অঞ্চলে বেশীরভাগ বিনিয়োগকারীরা দক্ষিণদিশার দিকে লক্ষ্য রাখছেন, যা ছিল 1.1215 পয়েন্টে 12ই নভেম্বরের রেকর্ড। এটি হল এই মুদ্রাজুড়ির মূল উদ্দেশ্য। নিকটতম সহায়ক স্তর হল 1.1265;
    বিকল্প পরিস্থিতি 30% বিশ্লেষক এবং D1-তে রৈখিক বিশ্লেষণ দ্বারা সমর্থিত হয়েছিল। যদি এই ঘটনাবলী তাদের পরিস্থিতি অনুযায়ী হয়, এই মুদ্রাজুড়ি আবারও একবার 1.1300-তে শক্তিশালী সহায়ক/প্রতিরোধক স্তরের উপরে উঠবে এবং 1.1360-এ তিন-সপ্তাহের পার্শ্ববর্তী চ্যানেলের মূল বিন্দুতে পৌঁছাতে পারে। পরবর্তী লক্ষ্যমাত্রা হল 1.1400 এবং 1.1440;

   

  • GBP/USD মুদ্রাজুড়ি। ব্রিটিশ মুদ্রা পরবর্তী সপ্তাহে অনেক ঘটনার মুখোমুখি হবে। বুধবার, 19শে ডিসেম্বরে একগুচ্ছ মুদ্রাস্ফীতির ডেটা প্রকাশিত হবে। এবং এমন কি যদি মুদ্রাস্ফীতি বৃদ্ধি পায়, বাজার বিবেচনা করতে পারে যে এরকম কোন বৃদ্ধি ব্রেক্সিটের কারণে পাউণ্ডের দুবর্লতার জন্য হতে পারে। পরের দিন, ব্যাংক অফ্ ইংল্যাণ্ড সুদের হারের সিদ্ধান্ত ঘোষনা করবে, যা সম্ভবত অপরিবর্তিত থাকবে, যা পাউণ্ডের বিরুদ্ধেও যাবে। শুক্রবারে জিডিপি বৃদ্ধির ডেটার ব্রিটিশ মুদ্রার সামগ্রিক সক্রিয়তা গুরুতরভাবে প্রভাবিত হবার সম্ভাবনা নেই। এবং সেগুলি নেতিবাচক।
    50% বিশেষজ্ঞ এবং প্রায় 90% নির্দেশক এর সাথে সহমত রয়েছেন। তাদের পূর্বাভাস অনুযায়ী, এই মুদ্রাজুড়ির প্রথমে 1.2475-এর দিগন্তে পতন হতে পারে, আর তার পরে আরো 75 পয়েন্ট নীচে।
    20% বিশ্লেষক এক নিরপেক্ষ অবস্থান নিয়েছেন, এবং বাকি 30% বিশ্লেষকরা এই মুদ্রাজুড়ির 1.2670-1.2700-এর অঞ্চলে বৃদ্ধির পক্ষে ভোট দিয়েছেন;  
  • USD/JPY মুদ্রাজুড়ি। এই মুদ্রাজুড়ির ভবিষ্যতের বিষয়ে, নির্দেশকরা কোন সুস্পষ্ট নির্দেশিকা দেয় নিঃ তাদের পঠন প্রায় সমানভাবে বিভক্ত হয়েছিল। বিশেষজ্ঞদের মতামতের ক্ষেত্রেও একই জিনিষ প্রযোজ্যঃ তাদের 45% এই মুদ্রাজুড়ির পতনের পক্ষে মত দিয়েছেন, 50% এই মুদ্রাজুড়ির বৃদ্ধি জারি রাখার পক্ষে এবং বাকি 5% নিছকই কাঁধ ঝাকাচ্ছেন। এই অনিশ্চয়তা স্পষ্ট হবে যদি আপনি এই মুদ্রাজুড়ির চার্ট দেখেন, যা বর্তমানে ছয়-সপ্তাহের পার্শ্ববর্তী-চ্যানেলে 112.30-114.00-এর প্রায় মাঝে স্থিত রয়েছে।
    ব্যাংক অফ্ জাপানের বৈঠকে এই মুদ্রাজুড়ির দরকে প্রভাবিত করার সম্ভাবনা খুব কম, এবং শুধুমাত্র যে ঘটনা এটিকে সত্যিকারের মোড় ঘোরাতে পারে তা হল ইতিমধ্যে উল্লেখিত সুদের হারের বিষয়ে ইউএস ফেডারেল রিজার্ভের সিদ্ধান্ত। এই ক্ষেত্রে, অনেক বিশ্লেষকদের মতে, এই মুদ্রাজুড়ি চ্যানেলের উর্ধ্বতন সীমানা ভেঙ্গে ফেলতে পারে এবং 114.55-114.75-এর অঞ্চলে পৌঁছাতে পারে। 
  • ক্রিপ্টোমুদ্রা। 60% বিশেষজ্ঞরা আশা করেন যে Bitcoin-এর নিম্নগতির প্রবণতা শক্তিশালী অঞ্চলে বজায় থাকবে, যা জুলাই-আগস্ট 2018-এর 2,500-2,700$-এ স্থির থাকবে। নিকটতম সহায়ক হল 2,940-3.050$-এর অঞ্চল। সামগ্রিক নেতিবাচক সক্রিয়তা ছাড়াও, গত বছরের অভিজ্ঞতা মন্দাবাজারের পক্ষে রয়েছে, যখন ডিসেম্বরের শেষে অনেক ওয়ালেট মালিকরা তাদের ক্রিপ্টো সঞ্চয় শেয়ারবাজারের স্বীকৃত মুদ্রায় স্থানান্তরিত করছে।  
    অপরপক্ষে, ভবিষ্যতের ক্রিপ্টোমুদ্রা বিশ্লেষণের সময়, তেজিবাজারের অবস্থানের সামান্য বৃদ্ধি দেখতে পাওয়া যেতে পারে (প্রায় 10%), যা 20% বিশ্লেষকদের ক্রিপ্টোজুড়ির পার্শ্ববর্তী প্রবণতার দিকে যাবার সত্যতা আছে বলে মনে হয়, এবং বাকি 20%-এর এই প্রবণতার বিপরীত দিকে যাবার অনুমান এবং এই মুদ্রাজুড়ির 4,500 অবধি বৃদ্ধি হবার প্রত্যাশায় রয়েছে। 

 

-রোমান বাটকো, NordFX

 

-বিজ্ঞপ্তিঃ এই লেখনীগুলিকে আর্থিক বাজারে লেনদেন করার জন্য বিনিয়োগ বা নির্দেশিকার জন্য সুপারিশ হিসাবে গণ্য করা উচিত হবে নাঃ এগুলি শুধুমাত্র তথ্যমূলক উদ্দেশ্যে করা হয়েছে। আর্থিক বাজারে ট্রেডিং ঝুঁকিপূ্র্ণ এবং এতে সমস্ত গচ্ছিত অর্থের ক্ষতি হয়ে যেতে পারে।  


« বাজার বিশ্লেষণ ও সংবাদ
প্রশিক্ষণ
গ্রহণ করুন
মার্কেটে নতুন? ব্যবহার করুন “শুরু করা যাক” বিভাগটি।
প্রশিক্ষণ শুরু করুন
আমাদের অনুসরণ করুন (সামাজিক নেটওয়ার্কগুলিতে)